এই সুবিধা চাইলে iPhone না কিনে Android ফোন ব্যবহার করুন, বার্তা অ্যাপল প্রধানের

আধ খাওয়া আপেলের লোগোযুক্ত আইফোন যে অধিকাংশ প্রিমিয়াম ডিভাইসপ্রেমীদের পছন্দের তালিকায় শীর্ষস্থানে থাকে – সে বিষয়ে নতুন করে কিছু বলার নেই। কিন্তু জনপ্রিয় এই হ্যান্ডসেটগুলির জন্যই এবার অস্বস্তির (পড়ুন সমালোচনার) মুখে পড়েছে মার্কিনি ব্র্যান্ড Apple (অ্যাপল)।

আর সমালোচনার মূল কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে সংস্থার অ্যাপ ইকোসিস্টেম নিয়ন্ত্রণ বা পরিচালনা ব্যবস্থা। আসলে Google (গুগল)-এর প্লে স্টোর ব্যবহারে যেমন সহজ, তেমনি এটি ইউজারদের অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড বা ব্যবহারে খুব একটা কড়া নিয়ম মানতে বাধ্য করে না।

এই কারণে অ্যান্ড্রয়েড ইউজাররা সাইডলোডিং অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করার অপশন পান বা সেগুলিকে অন্যান্য উৎস থেকে ডাউনলোড করতে পারেন। কিন্তু আইফোনের ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীদের এই জাতীয় কোনো সুবিধা দেওয়া হয় না, যার জন্যই সম্প্রতি বিষয়টি নিয়ে অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে। তবে এই সমালোচনার মুখে পড়ে Apple-এর সিইও এমন একটি বার্তা দিয়েছেন, যা শোনার পর অনেকেই অবাক হয়েছেন। ঠিক কী বলেছেন কোম্পানির কর্মকর্তা টিম কুক? আসুন জেনে নিই।

iPhone-এর বদলে Android ফোন ব্যবহার করার বার্তা দিলেন টিম কুক

এক্ষেত্রে অ্যাপলের সিইও কুক, অসন্তোষ প্রকাশকারী বা এই জাতীয় অ্যাপ ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ব্যবহারে আগ্রহীদের আইফোনের পরিবর্তে অ্যান্ড্রয়েড হ্যান্ডসেট ব্যবহার করার পরামর্শ দিয়েছেন। হ্যাঁ, শুনতে অবাক লাগলেও আদতে ঠিকই পড়েছেন। দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসকে একটি চ্যাটে কুক বলেছেন যে, বর্তমানে ইউজারদের নিজস্ব পছন্দ রয়েছে; তাই যদি কারো সাইডলোডিং অ্যাপ (বা এমন কোনো ফিচার যা আইফোনে নেই) ব্যবহার করা প্রয়োজন বা গুরুত্বপূর্ণ হয় তাহলে তাদের অ্যান্ড্রয়েড ফোন কেনাই উচিত! স্বাভাবিকভাবেই, প্রতিযোগিতার বাজারে প্রিমিয়াম ডিভাইস নির্মাতা সংস্থার প্রধানের এহেন মন্তব্যের পর অনেকে বিস্মিত হয়েছেন বটে, কিন্তু বাস্তবে এর পেছনে রয়েছে অন্য গল্প!

Apple-এর প্রাধান্য ইউজারের নিরাপত্তা ও গোপনীয়তা

কুকের মতে, আইফোন নির্মাণের ক্ষেত্রে সেটির সর্বাধিক সিকিউরিটি এবং প্রাইভেসির ওপর বেশি গুরুত্ব আরোপ করা হয়; এই কারণেই অ্যাপল কখনই অ্যাপ সাইডলোড করার অনুমতি দেয় না। শুধু তাই নয়, কোম্পানির শেয়ার করা সাম্প্রতিক একটি গবেষণা পত্রে, অ্যাপল বলেছে যে আইফোনের তুলনায় অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনগুলি ১৫ থেকে ৪৭ গুণ বেশি মোবাইল ম্যালওয়্যার দ্বারা আক্রমণের শিকার হয়েছে। আর অনেক ম্যালওয়্যার এবং অন্যান্য সমস্যা, অ্যাপের সাইডলোডিংয়ের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে যুক্ত হয়েছে বলেই তাদের অভিমত।

সেক্ষেত্রে সাইবার অপরাধীরা অ্যাপ স্টোরের চেহারা নকল করে ইউজারদের সাইডলোডিংয়ের মাধ্যমে বোকা বানানোর চেষ্টা করলেও, তা কঠিন এবং ব্যয়বহুল হবে বলে অ্যাপল জানিয়েছে। সোজা ভাষায় বললে, আইফোন কিনবেন নাকি বেশি ফিচার সম্বলিত অ্যান্ড্রয়েড কিনে নিজের নিরাপত্তা খোয়াবেন, পরোক্ষভাবে সেই সিদ্ধান্তই ক্রেতাদের ওপরে ছেড়েছে অ্যাপল প্রধান।