ভালো উইকেটে না খেললে বাংলাদেশের ক্রিকেটের আরো পতন হবে: আজহারউদ্দিন

ভারতের ক্রিকেটকে আজকের এই উচ্চ পর্যায়ে নিয়ে আসতে যে কয়জন ক্রিকেটার সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তাঁর মধ্যে আজহারউদ্দিন অন্যতম।

নতুন খবর হচ্ছে, এক সাক্ষাতকারে কথা বলতে গিয়ে উঠে আসে বাংলাদেশের ক্রিকেটের দুরবস্তা নিয়ে। তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, বাংলাদেশের ক্রিকেটের উন্নতির বড় বাধা উইকেট। ঘরোয়া কন্ডিশনে দুর্দান্ত খেলে নিউজিল্যান্ড পাকিস্তানকে হারালেও স্পোর্টিং উইকেটে টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপে এসে মুখ থুবড়ে পরে টাইগাররা।

যার একটাই কারণ সেটা হলো উইকেট। হোম কন্ডিশন কাজে লাগিয়ে প্রতিপক্ষকে হারানো দোষের কিছু নয়, তবে নিয়মিত স্পোর্টিং উইকেট না খেলায় ব্যাটসম্যান ও বোলাররা ভিন্ন কন্ডিশনে সফলতা পায় না।

অবশ্য এরজন্য আজহারউদ্দিন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের অবকাঠামোকেই দুষলেন। চলতি বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজে টাইগারদের সিরিজ হারের কারণও উইকেট জানিয়েছেন তিনি।

বিশ্বক্রিকেটের নিয়মিত খোজ খবর রাখা আজহার বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে পছন্দ মুশফিকুর রহিম, মাহমুদুল্লাল রিয়াদ ও সাকিবকে। পেসারদের মধ্যে কাটার মাস্টার মোস্তাফিজের চাইতে এগিয়ে রেখেছেন তাসকিন আহমেদকে। তার বোলিং ভেরিয়েশনে মুগ্ধ তিনি। তবে আবারো সেই পুরোনো ক্ষোভ। স্পোর্টিং উইকেটে না খেলায় নিজেদেরকেই প্রতিনিয়ন পিছিয়ে ফেলছে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। যার খেসারত দিয়ে টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ এবং বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজেও দিয়েছে টাইগারার।

বাংলাদেশের বয়সভিত্তিক দলের খবরও অজানা নয় তার। বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ দলকে আরো বেশী আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার সুযোগ করে দিতে বিসিবিকে অনুরোধ করেছেন তিনি।

টার্নিং উইকেটের বদলে বাউন্সি উইকেটে তরুণদের খেলার অভ্যাস গড়ে উঠলে জাতীয় দলের জন্য বড় সম্পদ হবেন

মেহরাব হোসেন ও আইচ মোল্লাদের মতো ক্রিকেটাররা। হয়তো অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জিতিয়ে নতুন বাংলার ক্রিকেটে নতুন ইতিহাস গড়বে এমন মন্তব্যই আজহারউদ্দিনের।।